ঢাকা বুধবার
১৯ জুন ২০২৪
১১ জুন ২০২৪

দেশের পুঁজিবাজারে কাজ করতে আগ্রহী হংকং ভিত্তিক কোম্পানি কিংডম টেকনোলজি


Reporter01
31

প্রকাশিত: ০৫ জুন ২০২৪
দেশের পুঁজিবাজারে কাজ করতে আগ্রহী হংকং ভিত্তিক কোম্পানি কিংডম টেকনোলজি Collected from online



হংকং ভিত্তিক কোম্পানি কিংডম টেকনোলজির জয়েন্ট ভেঞ্চার পার্টনার ডিইএক্স বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মি. ডেভিড ডিং ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসইর) চেয়ারমান অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবুর সাথে সাক্ষাত করেছেন। সাক্ষাতে ডিইএক্স বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মি. ডেভিড ডিং দেশের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের যথাযথ অংশগ্রহণ এবং সঠিক বিনিয়োগ শিক্ষা গ্রহণে সহযোগিতা করার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

বুধবার (৫ জুন) ডিএসই চেয়ারমানের কার্যালয়ে এ সাক্ষাত অনুষ্ঠিত হয়। এসময় তার সাথে ছিলেন ডিইএক্স বাংলাদেশ টেক কোং লিমিটেড বাংলাদেশ অফিসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আনোয়ার হোসেন।

ডিএসই চেয়ারমান অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু প্রতিনিধিবৃন্দকে স্বাগত জানিয়ে ডিএসইর বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করে বলেন, বাংলাদেশের পুঁজিবাজার একটি উদীয়মান পুঁজিবাজার। এখানে আধুনিক ও উন্নত টেকনোলজির মাধ্যমে ট্রেডিং কার্যক্রম সম্পন্ন হয়ে থাকে৷ তবে পুঁজিবাজারের বিভিন্ন সেক্টরে এখনো উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। আর উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে পুঁজিবাজারকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব। এজন্য প্রয়োজন সকলের সহযোগিতা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্মার্ট বাংলাদেশের সাথে সঙ্গতি রেখে বর্তমান পুঁজিবাজারকে আরও বেশি সম্পৃক্ত করার বিষয়ে ভাবছেন।

ডিইএক্স বাংলাদেশ টেক কোম্পানি ডিএসইর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবুর কাছে বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের উন্নয়নে ভূমিকা রাখার বিষয়ে কিছু প্রস্তাবনা উপস্থাপন করেন। কিংডম টেকনোলজির জয়েন্ট ভেঞ্চার পার্টনার ডিইএক্স বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মি. ডেভিড ডিং দেশের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের যথাযথ অংশগ্রহণ এবং সঠিক বিনিয়োগ শিক্ষা গ্রহণে সহযোগিতা করার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

এছাড়াও তিনি বিভিন্ন ব্রোকারেজ হাউজকে প্রযুক্তিগত সহযোগিতা প্রদানেরও আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এসব ব্যাপারে ডিএসইতে একটি সুনিদিষ্ট প্রস্তাবনা জমা দেয়ার কথাও তিনি জানান। ডেবিট ডিএসই’র অত্যাধুনিক ডেটা সেন্টারের স্পেস ভাড়া নেয়ার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেন।

ডাটা সেন্টার ভাড়ার বিষয়ে ডিএসই চেয়ারম্যান বলেন, ডিএসই ১০৬ রেক বিশিষ্ট আধুনিক ডেটা সেন্টার স্থাপন করেছে। তবে ডেটা সেন্টারের এখনো কিছু উন্নয়নমূলক কার্যক্রম বাকী রয়েছে। উন্নয়নমূলক কাজগুলো দ্রুত সম্পন্ন করে একটি সুনিদিষ্ট গাইডলাইনের মাধ্যমে অব্যবহৃত স্পেস ভাড়া দেয়ার পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে।


আরও পড়ুন: